মামলা করা ছিল যার নেশা

মামলা করা ছিল যার নেশা

আমাদের দেশে বিশেষ করে গ্রামে এমন কিছু মানুষ আছেন, যারা কথায় কথায় পাড়া-প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজনসহ নানা মানুষের বিরুদ্ধে মামলা করে বসেন।

হয়তো প্রতিবেশীর গরু-ছাগল ঘাস খেতে ঢুকে পড়েছিল ক্ষেতে এরজন্য দাও মামলা ঠুকে। কিংবা বাড়ি বা জমির সীমানা নিয়ে সামান্য কথা কাটাকাটি বা দ্বন্দ্ব হয়েছে দাও মামলা ওদের বিরুদ্ধে । এভাবে মামলা জুড়ে দিয়ে সবাইকে বেশ চাপের মুখে রাখেন এ ধরনের মামলাবাজরা।

কিন্তু তাদের সবাইকে পেছনে ফেলে দিয়ে সবচেয়ে বেশি মামলা করার বিশ্ব রেকর্ড করেছেন জনাথন লি রিচেস নামের এক ব্যক্তি।  প্রায় সাড়ে চার হাজার মামলা করেছিলেন তিনি ।

তিনি এমনই এক মামলাবাজ যিনি কিনা নিজের মায়ের বিরুদ্ধেও মামলা করেছিলেন। আর সেটি ছিল তার প্রথম মামলা। মায়ের বিরুদ্ধে তার অভিযোগ ছিল, মা নাকি শিশুকালে ঠিকমতো তার যত্নআত্তি করেননি। মজার ব্যাপার হচ্ছে সেই মামলা তিনি জিতেছিলেন এবং বিশ হাজার ডলার ক্ষতিপূরণও পেয়েছিলেন।

জনাথন লি উইচেস নিজেও জালিয়াতির অভিযোগে বেশ কিছুদিন বন্দি ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা জনাথন মামলা করেছেন নিজের পাড়া-প্রতিবেশী, আত্নীয়স্বজন, জীবিত, মৃত ব্যক্তি, জড় পদার্থ  থেকে শুরু করে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ, পপ তারকা ব্রিটনি স্পিয়ার্স, স্টিভ জবস সহ বিখ্যাত এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে। 

ফ্রান্সের বিখ্যাত আইফেল টাওয়ার এমনকি পৃথিবী থেকে বহু বহু দূরে অবস্থান করা প্লুটো গ্রহটিও বাদ যায়নি তার মামলা থেকে।  এমনকি নিজ দেশের ফুটবল দলের গোলকিপারের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

তার এত সংখ্যক মামলা করার কারণে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে তার নাম লিপিবদ্ধ করা হয়। শেষে তাদের বিরুদ্ধেও মামলা ঠুকে দেন তিনি, বিনা অনুমতিতে তার নাম রেকর্ড বুকে লিপিবদ্ধ করায়। আর সেই মামলায় জিতে তিনি ক্ষতিপূরণ হিসেবে পেয়েছিলেন আট মিলিয়ন ডলার।

তার জীবনের আরো একটি মজার ঘটনা হলো , একবার তাকে একটি টিভি শোতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, তার এই খ্যাপাটে মামলাবাজির জন্য । পরবর্তীতে জনাথন করলেন কি সেই টেলিভিশনের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিলেন। তার অভিযোগ ছিল যে, ওই টেলিভিশন চ‌্যানেলটি নাকি শো তে ডেকে এনে অসম্মান করেছেন। তিনি মামলা জেতেন এবং ৫০ হাজার ডলার ক্ষতিপূরণ পান ।

ভাগ্যিস যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকিভিত্তিক অ্যাটর্নি অফিস বিচারসংক্রান্ত সম্পদ অপচয়ের অভিযোগের শাস্তি হিসেবে জনাথনের মামলা করার ক্ষমতা কেড়ে নিয়েছিল। নইলে সেই আদালতের বিরুদ্ধেও যে একটি মামলা করে দিতেন তিনি।

এখানে মন্তব্য করুন :